দিল্লি থেকে ধৃত গুরুং ঘনিষ্ঠ মোর্চা নেতা


দিল্লি থেকে ধৃত গুরুং ঘনিষ্ঠ মোর্চা নেতা


মনোজ শঙ্কর দিল্লির কেন্দ্রবিন্দু থেকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। দিল্লি ছাড়াও মোর্চার পক্ষে দুই দিনাজপুর ও মালদা জেলাকে সংগঠিত করার দায়িত্ব ছিল তার উপর। তিনি দিল্লির সমস্ত শীর্ষ ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন যাঁরা গোর্খাল্যান্ডের পক্ষে ছিলেন।

আন্দোলনের তহবিল জোগাড়ের জন্য হিমাচল প্রদেশে ও উত্তরাখণ্ডেও তাঁর যোগাযোগ ছিল। মোর্চার সংগঠনকে মজবুত করতে তার উত্তরবঙ্গে আসার পরিকল্পনা ছিল।

এর আগে পুলিশ অফসার অমিতাভ মালিকের মৃত্যুতে CID তদন্তের নির্দেশ দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারের নিন্দা করেন বিমল গুরুং। বদলে CBI তদন্তের দাবি জানান।

একটি অডিও টেপ প্রকাশ করে বিমল বলেন, “আমরা CID তদন্তের প্রতিবাদ করছি এবং পরিবর্তে CBI তদন্তের আবেদন জানাচ্ছি। পশ্চিমবঙ্গ সরকার আমাদের দলের উপর একনায়ক শাসন চালাচ্ছে যা CID-র মাধ্যমে বৃদ্ধি পাবে।”

পাহাড়ে বিস্ফোরণ থেকে পুলিশকর্মীর মৃত্যু, সবকিছুতেই রাজ্যের শাসকদল ও পুলিশ রয়েছে। তাঁকে ফাঁসাতে পরিকল্পনা করে এসব করা হচ্ছে বলে অভিযোগ মোর্চা সুপ্রিমো বিমল গুরুঙের।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্ধৃত করে গুরুং বলেন, “আমরা দেশদ্রোহী নয়। গোর্খাল্যান্ডের দাবি আমাদের মৌলিক অধিকার।”

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*